empty
 
 
ইন্সটাস্পোর্ট

ইন্সটাস্পোর্ট

উচ্চাকাঙ্ক্ষী, অধ্যবসায়ী, এবং দৃঢ় ইচ্ছাশক্তিসম্পন্ন – আমাদের পার্টনার এবং ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডরগণ এইসকল যোগ্যতার অধিকারী. তাদের দৃষ্টান্ত থেকে অনুপ্রাণিত হন এবং অভূতপূর্ব বিজয় অর্জন করুন
এলেস লপ্রেইস
২০১১ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর
  • সেন্ট্রাল ইউরোপ র‍্যালি ২০০৮-এর ব্রোঞ্জ জয়ী
  • সিল্ক ওয়ে র‍্যালি ২০০৯-এর ব্রোঞ্জ জয়ী
  • সিল্ক ওয়ে র‍্যালি ২০১১-এর স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত
  • মরক্কোয় অনুষ্ঠিত ঐলিবিয়া র‍্যালি ২০১৫-এর রৌপ্যপদকপ্রাপ্ত
  • মরক্কো ডেসার্ট চ্যালেঞ্জ ২০১৮-এর বিজয়ী
আরও জানুন
ইন্সটাফরেক্স লপ্রেইস টিম
২০১১ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের পার্টনার
  • র‍্যালি ব্রেসলো ২০১৪-এর বিজয়ী
  • মরক্কোয় অনুষ্ঠিত ঐলিবিয়া র‍্যালি ২০১৫-এর রৌপ্যপদকপ্রাপ্ত
  • মরক্কো ডেসার্ট চ্যালেঞ্জ ২০১৮-এর বিজয়ী
আরও জানুন
এইচকেএম জিভোলেন
২০১৩ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের পার্টনার
  • আইআইএইচএফ কন্টিনেন্টাল কাপ ২০০৫-এর বিজয়ী
  • স্লোভাক এক্সট্রালিগার ২ বারের চ্যাম্পিয়ন
  • স্লোভাক ন্যাশনাল হকি লীগের ৪ বারের চ্যাম্পিয়ন
  • রনা কাপের ২ বারের চ্যাম্পিয়ন
  • স্লোভাক ওয়ান লিগার বিজয়ী
আরও জানুন
ড্রাগন রেসিং ফরমুলা ই টিম
২০১৫ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের পার্টনার
  • বার্লিন ইপ্রিক্স ২০১৫-এর বিজয়ী
  • মেক্সিকান ইপ্রিক্স ২০১৬-এর বিজয়ী
আরও জানুন
ইউলিয়া এফিমোভা
2021 সাল থেকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর
  • অলিম্পিক গেমসে চারবার অংশগ্রহণকারী
  • 2012 এবং 2016 সালে তিনবার অলিম্পিক স্বর্ণপদক প্রাপ্ত
  • ছয়বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন
  • সাতবারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন
  • ইউরোপীয় সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে একাধিক রেকর্ডধারী
আরও জানুন
বিশ্বনাথন আনন্দ
২০১৯ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর
  • ১৯৮৭ সালের বিশ্ব জুনিয়র দাবা চ্যাম্পিয়ন
  • ১৯৯৭, ১৯৯৮, ২০০৩, ২০০৪, ২০০৭ এবং ২০০৮ সালের দাবা অস্কার বিজয়ী
  • ২০০০ সালের ফিডে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন
  • ২০০০ ও ২০০৩ সালের ফিডে দাবা বিশ্বকাপ বিজয়ী
  • ২০০৩ ও ২০১৭ সালের ফিডে বিশ্ব র‍্যাপিড দাবা চ্যাম্পিয়ন
  • ২০০৭ সালের বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়ন
আরও জানুন
ভ্লাদিমির মোরাভচিক
২০১৯ সাল থেকে ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর
  • ২ক্স এনফিউশন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১৭-২০১৮
  • এনফিউশন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১৮
  • এনফিউশন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১৭
  • ডব্লিউএমসি ইন্টারকন্টিনেন্টাল চ্যাম্পিয়ন ২০১৬
  • ডব্লিউএফসিএ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১৫
  • ডব্লিউএমসি ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন ২০১৩
  • ডব্লিউএমসি আই-ওয়ান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১০
  • ডব্লিউফাইভ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০১০
  • ডব্লিউপিএমএফ ইন্টারকন্টিনেন্টাল চ্যাম্পিয়ন ২০১০
আরও জানুন
আরসি লেগিয়া ওয়ারসজাওয়া
2021 সাল থেকে পোল্যান্ডে ইন্সটাফরেক্সের অংশীদার
লেগিয়া ওয়ারসজাওয়ার পোলিশ রাগবি ক্লাব বিভাগ, মহিলা দল:
  • 2017/2018 পোলিশ চ্যাম্পিয়নশিপের ব্রোঞ্জ পদক
  • 2016/2017 পোলিশ চ্যাম্পিয়নশিপের রৌপ্য পদক
  • 2015/2016 পোলিশ চ্যাম্পিয়নশিপের ব্রোঞ্জ পদক
পুরুষ দল:
  • পোলিশ বিচ রাগবি চ্যাম্পিয়ন্স 2015
আরও জানুন
শীতকালীন ক্রীড়ার কিংবদন্তি, নরওয়েজিয়ান বায়াথলেট উল আইনার বিয়োর্নডালেন ২০১৫ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরের জন্য ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। তিনি একজন অবিসংবাদিতভাবে বায়াথলন এবং অলিম্পিক গেমসের ইতিহাসে সবচেয়ে নেতৃস্থানীয় ও সজ্জিত ক্রীড়াবিদ। উল আইনারের এর সাথে পার্টনারশীপ ইন্সটাফরেক্সের জন্য অনেক বড় সম্মানের ব্যাপার ছিল। এর মাধ্যমে আমরা এই ক্রীড়াবিদের প্রধান আদর্শ গ্রহণ করতে পেরেছি - বিজয় এবং উদ্ভাবনের জন্য প্রচেষ্টা, আত্মবিশ্বাস এবং নিবেদন।

২০১৮ সালে এই ক্রীড়াবিদ তার ক্যারিয়ার শেষ করেছেন। বর্তমানে তিনি বায়থলনের উন্নয়নে কাজ করছেন এবং তরুণ ক্রীড়াবিদদের পারফরম্যান্সের কৌশল তত্ত্বাবধান করছেন।
দারিয়া কাসাতকিনা একজন বিখ্যাত রাশিয়ান টেনিস খেলোয়াড় যিনি ২০১৭ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। দারিয়ার ক্রীড়া সাফল্য সত্যিই চিত্তাকর্ষক: তিনি ডাবলসে অনুষ্ঠিত ক্রেমলিন কাপ এবং রোল্যান্ড গ্যারোস জুনিয়র গ্র্যান্ড স্লাম টুর্নামেন্টের বিজয়ী। তাছাড়া, তিনি দুটি ডব্লিউটিএ এবং সাতটি আইটিএফ টাইটেল অর্জন করেছেন।

আমরা ২০১৮ ভিটিবি ক্রেমলিন কাপে দারিয়ার অসামান্য জয়ের সাক্ষী হয়েছি। এই টুর্নামেন্টে তিনি অবিশ্বাস্য ফলাফল করেছিলেন, যার ফলে ডব্লিউটিএ বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দশে জায়গা করে নিয়েছেন।
রাশিয়ান স্পোর্টস কার প্রস্তুতকারক মারুসিয়া মোটরসের সহযোগী সংস্থা হিসেবে ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত মারুসিয়া এফওয়ান টিমের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে ইন্সটাফরেক্স ২০১৩ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছিল। তরুণ এবং উচ্চাভিলাষী রেসিং টিমগুলোকে সমর্থন করার ঐতিহ্যকে লালন এবং সমৃদ্ধ করার ক্ষেত্রে এটি আমাদের কোম্পানির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ছিল। মারুসিয়া এফওয়ান বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ এবং চ্যালেঞ্জিং টুর্নামেন্ট এফআইএ ফর্মুলা ওয়ান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করেছিল। ২০১৪ সালের অক্টোবরে মারুসিয়া এফওয়ান টিমের সাথে ইন্সটাফরেক্স যৌথভাবে তাদের ক্লায়েন্টদের বৃহৎ পুরস্কার প্রদান করা হয়েছিল। পুরস্কার বিজয়ীকে সোচিতে আয়োজিত রাশিয়ান গ্র্যান্ড প্রিক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভিআইপি টিকিট দেওয়া হয়েছিল।
২০১৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ইন্সটাফরেক্স এশিয়া ও সিআইএসভুক্ত দেশগুলোর জন্য পালের্মো ফুটবল ক্লাবের অফিসিয়াল পার্টনার ছিল। ২০১৫ সালে সিরি-আ চলাকালীন সময়ে যখন দলটি শীর্ষস্থান দখলের জন্য তীব্র লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয় তখন এই সহযোগিতায় চুক্তি সম্পাদিত হয়। পালের্মোর মত ইন্সটাফরেক্সও শীর্ষস্থানে পৌছানোর প্রচেষ্টায় অবতীর্ণ হয়। পার্টনারশীপ চলাকালীন সময়ে সিরি-আ লীগের পালের্মোর খেলার বেশ কয়েকটি ভিআইপি টিকেট ইন্সটাফরেক্সের ক্লায়েন্টদের পুরস্কার হিসেবে প্রদান করা হয়।
লিভারপুল এফসি
২০১৪ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ইন্সটাফরেক্স এশিয়া ও সিআইএসভুক্ত দেশগুলোর জন্য লিভারপুল ফুটবল ক্লাবের অফিসিয়াল পার্টনার ছিল। কিংবদন্তি এই ফুটবল দলের সাথে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক আমাদের জন্য বিশাল সম্মানের ব্যাপার ছিল। আমাদের লক্ষ্য ছিল একই- এক ধাপ সামনে এগিয়ে যাওয়া ও সেরায় পরিণত হওয়ার প্রচেষ্টা। পার্টনারশীপ চলাকালীন সময়ে, ইন্সটাফরেক্সের ক্লায়েন্টগণ লিভারপুল এফসির সহযোগিতায় আয়োজিত বিশেষ প্রচারণা অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। বেশ কয়েকজন অংশগ্রহণকারী লিভারপুলে যাওয়ার টিকেট জিতে নেয় এবং এই বিখ্যাত ফুটবল ক্লাবের বেশ কয়েকটি খেলা হোম ভেন্যুতে উপভোগ করে।
২০১১ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত দাবার নরওয়েজিয়ান গ্র্যান্ডমাস্টার ম্যাগনাস কার্লসেন ইন্সটাফরেক্সের অন্যতম ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। তার অর্জন ও খেতাবের তালিকা সত্যিই চমকপ্রদ। কার্লসেন টানা ৫ বার দাবার অস্কার জয়লাভ করেন। ২০১৯ সালে এই গ্র্যান্ডমাস্টার ফিডে র‍্যাপিড ও ব্লিটজ রেটিং তালিকার শীর্ষ ৫-এ ছিলেন। ২০১৩ সালে তিনি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হন ও এখনও সেই খেতাব ধরে রেখেছেন যা তাকে সর্বকালের সেরা একজন দাবাড়ু বানিয়েছে। ইন্সটাফরেক্সের প্রতিনিধিদের সাথে দেখা করার সময় এই দাবা তারকা ইন্সটাফরেক্সের উঁচু মানের পরিষেবার কথা উল্লেখ করেছিলেন এবং বলেছিলেন যে কৌশলগত পরিকল্পনা একজন ব্যক্তিকে শুধুমাত্র দাবার বোর্ডে নয়, এর বাইরেও সফল হতে সাহায্য করতে পারে।
২০১২ সালে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বিশ্ব টেনিসের অন্যতম উজ্জ্বল তারকা ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জুনিয়র টুর্নামেন্ট, ডেভিস কাপ ও এটিপি টেনিস টুর্নামেন্ট বিজয়ী ইয়াঙ্কো টিপসারেভিচের কাছে ইন্সটাফরেক্সের মত সাফল্যের একই চাবিকাঠি রয়েছেঃ আত্নবিশ্বাস, লক্ষ্য অর্জনে অধ্যবসায় ও ক্রমাগত আত্ন-উন্নয়ন। ২০১২ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত এরকম একজন বিখ্যাত টেনিস খেলোয়ারের সাথে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্কে যেতে পেরে আমরা গর্বিত।
২০১২ সালে বিখ্যাত ক্রীড়াবিদ ও অভিনেতা ওলেগ তাক্তারোভ ইন্সটাফরেক্সের সাথে একটি সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর করেন যা ২০১৭ সাল পর্যন্ত কার্যকর ছিল। সাবেক ইউএফসি চ্যাম্পিয়ন, টিভি উপস্থাপক, চিত্র প্রযোজক ও লেখক ওলেগ তাক্তারোভ তার ডাকনাম রাশিয়ান ভাল্লুক -এর প্রতি সুবিচার করে তার লক্ষ্যপূরণে অবিচল থাকেন। এই চ্যাম্পিয়নের নতুন উচ্চতা অর্জনের আকাঙ্ক্ষা তাকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে জড়িত হতে প্ররোচিত করেছিল। অনুকূল ট্রেডিং পরিস্থিতি বিবেচনাপূর্বক তিনি ইন্সটাফরেক্সের সাথে তার ট্রেডিং ক্যারিয়ার শুরু করেন।
একাধিকবার ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন ও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপ ও অলিম্পিক পুরস্কারজয়ী ইলোনা কর্স্টিন ২০১১ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। দৃঢ় ইচ্ছাশক্তিসম্পন্ন ও নিবেদিতপ্রাণ বাস্কেটবল খেলোয়ার ইলোনা ক্রমাগত তার খেলার কৌশলের উন্নতি করেছেন এবং তার দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে গিয়েছেন। ইন্সটাফরেক্সও একই পথ অনুসরণ করে, সক্রিয়ভাবে নিজেদের পরিষেবার উন্নতি করছে এবং ক্লায়েন্টদের জন্য ট্রেডিংয়ের অনুকূল পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে।
২০১২ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত একাধিকবার মুয়াই থাই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আন্দ্রেই কুলেবিন ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। আন্দ্রেই এমেচার বিভাগে ১৮ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন এবং মুয়াই থাই ও কিকবক্সিংয়ের প্রফেশনাল বিভাগে ১৪ বারের চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। আন্দ্রেইয়ের অনেক অর্জনের মধ্যে একটি বিজয় সরাসরিভাবে ইন্সটাফরেক্সের সাথে সম্পর্কিত। ২০১২ সালে, ইন্সটাফরেক্স বেলারুশে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট কিং অফ মুয়াই থাইকে পৃষ্ঠপোষকতা করার সম্মান পেয়েছিল। আন্দ্রেই কুলেবিন সেই চ্যাম্পিয়নশিপ জিতে আবারও কিং অফ মুয়াই থাইয়ের টাইটেল নিশ্চিত করেছেন। এমন একজন উজ্জ্বল ক্রীড়াবিদের সাফল্যের সাথে জড়িত থাকতে পেরে আমরা গর্বিত।
২০১৩ সালে থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সুপরিচিত বেলারুশিয়ান টেনিস খেলোয়াড় ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা ইন্সটাফরেক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। ভিক্টোরিয়া ২০০৯ সালে তার প্রথম ডব্লিউটিএ টাইটেল জয় করে, ২০১২ সালে জানুয়ারি মাসে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতে নেন ও অলম্পিকে টেনিসে স্বর্ণপদক লাভ করেন, এইভাবে তিনি ডব্লিউটিএ তালিকার শীর্ষে চলে আসেন। আজারেঙ্কার জয়ের আকাঙ্ক্ষা, উদ্দেশ্যপূর্ণতা ও চাপ জয় করার মানসিকতার জন্য ইন্সটাফরেক্স তাকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। এইসকল ব্যক্তিগত গুণাবলীই সাফল্যের জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ইন্সটাফরেক্সের ক্লায়েন্ট ও ক্রীড়াবিদদের এক সুতোয় বেঁধেছে।
২০১০ থেকে ২০১১ পর্যন্ত ইন্সটাফরেক্স টর্নেডো-ইন্সটাফরেক্স ফাইট ক্লাবের টাইটেল স্পন্সর ছিল ও ইউক্রনে অনুষ্ঠিত গ্র্যান্ড মিক্স ফাইটের জেনারেল পার্টনার ছিল। ক্লাবটি অনেক গৌরবময় বিজয় অর্জন করেছে। ২০১০ সালে ক্লাবটি এম-ওয়ান সেলেকশন ইউক্রেন টুর্নামেন্ট এবং চ্যাম্পিয়নস ব্যাটল টুর্নামেন্টে বিজয়ী হয়। ২০১১ সালে টর্নেডো ক্লাবের সদস্যরা গ্র্যান্ড মিক্স ফাইট এবং প্রোএফসি কাপে খুবই প্রশংসিত হয়েছিল। ফাইট ক্লাবের সাথে স্পনসরশিপ এবং সহযোগিতা ইন্সটাফরেক্সের জন্য ইতিবাচক অভিজ্ঞতা হয়ে উঠেছে।
এখন কথা বলতে পারবেন না?
আপনার প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন চ্যাট.